ছদ্মবেশ ধারণ করেছে নতুন কোভিড ভাইরাস, আর টি-পিসিআর টেস্টকেও ফাঁকি দিচ্ছে

কোভিডের এই ভয়াবহ দ্বিতীয় সার্জ এ ভাইরাস কার্যত ছদ্মবেশ ধারণ করেছে বলে বিজ্ঞানীদের অনুমান। এর ফলে কোভিড নির্ণয়ের মাধ্যম আর টি-পিসিআর টেস্টও হার মানছে। দ্বিতীয় অভিঘাতে আক্রান্ত ১৫ থেকে ২০ শতাংশ রোগী আর টি-পিসিআরে নেগেটিভ হলেও সিটি স্ক্যান জাতীয় পরীক্ষায় পজিটিভ বলে ধরা পড়েছেন। এতদিন আর টি- পিসিআর টেস্টকে কোভিড নির্ণয়ের মহাঅস্ত্র বলে ধরা হত। সেই পরীক্ষাও ব্যর্থ হচ্ছে। বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন যে নতুন এই অভিঘাতে ভাইরাস কোষ বিভাজনের ফলে এমন চেহারা নিচ্ছে যার ফলে উপসর্গ থাকলেও পরীক্ষায় কোভিড নেগেটিভ কেস আসলে পজিটিভ হচ্ছে। কোনো কোনো ক্ষেত্রে ব্রঙ্কোস্কপির মতো কঠিন পরীক্ষার সাহায্যও নিতে হচ্ছে। ব্রঙ্কোস্কপি হল নাক কিংবা গলার মধ্যে দিয়ে নল ঢুকিয়ে ফুসফুস থেকে তরল নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করা।

এর দ্বারা অনেকসময় পজিটিভ রোগীর সন্ধান মিলছে। কোভিডের সাধারণ উপসর্গগুলি না থাকলেও সাম্প্রতিক সার্জ এ বহু পজিটিভ কেসে দেখা গেছে রোগী পেটের পীড়া ও হাই ফিভারে ভুগছেন। ইনস্টিটিউট অব লিভার এন্ড বাইলারি সায়েন্সেসের এসোসিয়েট অধ্যাপক ডা. প্রতিভা কালের পর্যবেক্ষণে ভাইরাসের নতুন উপসর্গ ধরা পড়েছে। এমনকি চোখে কনজাংকটিভাইটিস হলে অথবা স্রেফ সর্দি হলেও যে কোনো ব্যাক্তি কোভিড পজিটিভ হতে পারেন। অর্থাৎ, আর টি-পিসিআর টেস্টে নেগেটিভ হলেও নিশ্চিন্ত থাকার দিন শেষ।

এই পাতাটি ৩৭বার পড়া হয়েছে

স্বাস্থ্য প্রবন্ধ